শনিবার, আগস্ট ২৪, ২০১৯

যুগ পেরিয়ে মম

  • রিপোটারের নাম
  • ২০১৯-০১-২২ ০৬:১৩:২৫
image

দরজা খুলতেই নাকে একটা গন্ধ এল। মাংস কষানোর ঘ্রাণ। অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম দরজা খুলে দিয়ে বসার ঘর দেখিয়ে দিলেন। জানতে চাইলাম, এই ঘ্রাণের উৎস কি পাশের বাসা?একচোট হেসে নিলেন মম, ‘না, আমার রান্নাঘর। হাঁসের মাংস চড়িয়েছি, সঙ্গে চালের গুড়ার রুটি।’ বসতে বসতেই খানিকটা ইতস্তত করে বললাম, ‘নায়িকারা রান্না করার সময় পায়?’ এবার রে রে করে উঠলেন মম। শুনিয়ে দিলেন সেই চিরাচরিত বাণী, যে রাঁধে, সে চুলও বাঁধে। তারপর মাংসে ঝোল দিতে হবে বলে উঠলেন। সহকারীকে কাজটা বুঝিয়ে দিয়ে এসে বসলেন মুখোমুখি।অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম অভিনয়জীবনের এক যুগ পার করে, ১৩তম বছরটি শুরু করেছেন। বিগত এক যুগের ভ্রমণ নিয়ে কথা বলতেই সম্প্রতি মুখোমুখি হয়েছিলাম তাঁর উত্তরার বাসায়। আগের দিন নেপাল থেকে ফিরেছেন। শুরু করলেন নেপালের শীতের গল্প। সেসব শেষ হলে আমরা জানতে চাই ১২ বছরের কথা। মম ১২ বছর নয়, তারও আগের গল্প দিয়ে শুরু করেন। সেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার গল্প, যেখানে মমর বেড়ে ওঠা, ‘আমার বয়স যখন তিন-চার বছর, তখন থেকেই আমি নাচ শিখতাম। ঢাকায় আসার পর নাচে নিয়মিত হয়েছি। রতন স্যার (নৃত্যশিল্পী কবিরুল ইসলাম) আর মৌ আপুদের (সাদিয়া ইসলাম) যে সংগঠন নৃত্যলোক, সেখানে একটানা ১০ বছর নাচ করেছি।’

 

 


এ জাতীয় আরো খবর